অর্থনীতি লিড নিউজ

পেঁয়াজের ঝাঁঝ; সংশ্লিষ্টদের নিরবতায় ক্যাবের ক্ষোভ

বিএনএন ৭১ ডটকম
চট্টগ্রাম: ভারতে পেঁয়াজের রফতানি মূল্য বাড়ানোর সংবাদে দেশে পেয়াঁজের মূল্য হঠাৎ করে আরেক দফা বাড়লেও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, জেলা প্রশাসন কোন প্রকার উদ্যোগ না নিয়ে নিরব থাকায় জনমনে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

আর্ন্তজাতিক বাজারে দাম বৃদ্ধির অযুহাতে ব্যবসায়ীরা বারবার তাৎক্ষনিক দাম বাড়ালেও বিদেশে দাম কমলে তার প্রতিফলন দেশে হয় না, তখন উল্টো সুর বেশী দামে কেনা, লোকসান দিয়ে বিক্রি করবো নাকি? যে কোন পণ্যের দাম বাড়লে বা কৃত্রিম সংকট তৈরি হলে ইতি পূর্বে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও জেলা প্রশাসন ঐ খাতের ব্যবসায়ী ও ভোক্তা এবং প্রশাসনের লোকজনকে নিয়ে করনীয় বিষয়ে পরামর্শ সভা করে বিকল্প উৎস থেকে আমদানি করা, বাজার তদারকি জোরদার করে মজুতদারী ঠেকানো, টিসিবিকে দিয়ে খোলা বাজারে পণ্য বিক্রির উদ্যোগ নিয়ে অস্থিরতা দূরীকরণে উদ্যোগ নেয়ার উদাহারণ থাকলেও ইদানিং ব্যবসায়ীদের উপর সবকিছুর ছেড়ে দিয়ে সরকারের দায়িত্বশীল লোকজন দিবাস্বপ্নে বিভোর।

এ অবস্থায় জনগনের অবস্থা ত্রাহি, ত্রাণ কর্তা হিসাবে আল্লাহর কাছে প্রার্থণা করা ছাড়া উপায় থাকছে না। এরআগে ব্যবসায়ীরা বাজেটে শুল্ক আরোপসহ নানা অজুহাতে দাম বাড়ালেও সরকার বেশ কিছু পণ্যের বিষয়ে শুল্ক ছাড় দিলেও বাজারে তার প্রতিফলন ঘটেনি। ফলে বাজারে সবরকম নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগ্য পণ্যের দাম সাধারণ মানুষের নাগালে চলে গেছে।

এ অবস্থায় জরুরিভাবে সরকারের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, জেলা-উপজেলা প্রশাসন, জাতীয় ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরসহ সরকারের বিভিন্ন বিভাগের প্রতিনিধি, ক্যাব, গণমাধ্যম ও চেম্বার প্রতিনিধি সমন্বয়ে বাজার তদারকি জোরদার, জাতীয় ও স্থানীয় ভাবে ব্যবসায়ীদের সাথে জরুরি সভা করে সম্ভাব্য করনীয় নির্ধারন, বিকল্প উৎস থেকে এ সমস্ত পণ্য আমদানি নিশ্চিত করা, বিকল্প বাজার হিসাবে টিসিবির মাধ্যমে ভোগ্য পণ্য বিক্রি জোরদার করার দাবি জানিয়েছেন দেশের ক্রেতা-ভোক্তাদের স্বার্থ সংরক্ষনকারী জাতীয় প্রতিষ্ঠান কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব)।

বাজারে পেয়াঁজের মূল্য অস্বাভাবিক ভাবে বৃদ্ধিতে এক বিবৃতিতে ক্যাব কেন্দ্রিয় কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট এস এম নাজের হোসাইন, ক্যাব চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাধারণ সম্পাদক কাজী ইকবাল বাহার ছাবেরী, ক্যাব মহানগরের সভাপতি জেসমিন সুলতানা পারু, সাধারণ সম্পাদক অজয় মিত্র শংকু, যুগ্ন সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম, ক্যাব চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা সভাপতি আলহাজ্ আবদুল মান্নান প্রমুখ উপরোক্ত দাবি জানান।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, ভারত থেকে আমদানি করা পেঁয়াজের দাম প্রতি কেজি প্রায় ৮০-৯০ টাকায় বিক্রি করছে। ভারতে দামবৃদ্ধির সংগে সংগে দেশীয় বাজারে দাম বাড়ানো হচ্ছে। অথচ ভারতে দাম কমলে ভোক্তারা তার সুফল পায় না। পাইকারি ব্যবসায়ীদের অযুহাত, ভারতে পেঁয়াজ উৎপাদনকারী রাজ্যে বন্যা হওয়ায় পেঁয়াজের দাম বেড়েছে। তবে খুচরা বিক্রেতারা বলছে, আমদানি কম হওয়ার সুযোগ নিয়ে হিলি বন্দরের পাইকাররা কারসাজি করে পেঁয়াজের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে।

এ অবস্থায় যখনই কোন পণ্যের সংকট তেরি হয় পাইকারী ব্যবসায়ীরা খুচরা ব্যবসায়ীদের উপর দোষ চাপান আর খুচরা ব্যবসায়ীরা পাইকারী ব্যবসায়ীদের উপর দোষ চাপিয়ে জনগনের নাভিশ্বাস তৈরি করেন।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, মানুষের জনদুর্ভোগ লাগবে কার্যকরী ও বিকল্প ব্যবস্থা হিসাবে ভ্রাম্যমান আদালত, সমন্বিত বাজার তদারকি কার্যক্রম একটি উদ্ভাবনী মডেল চলমান ছিলো। যেখানে জেলা-উপজেলা প্রশাসন সফল ভাবে নেতৃত্ব প্রদান করলেও বর্তমানে নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগ্য পণ্যের বাজার স্থিতিশীল রাখা, নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতের মতো অতিজনগুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলিতে প্রশাসনের দৃষ্ঠি না থাকায় তাঁরা সাধারণ জনগনের দুর্ভোগ লাগবে উদ্যোগ নিতে আগ্রহ দেখাচ্ছে না।

সাধারণ মানুষের জীবন-জীবিকায় দুর্ভোগ লাগবের বিষয়গুলি গৌণ হয়ে যাচ্ছে। ফলে সরকারের অনেক উদ্ভাবনী উদ্যোগের সফল তৃণমূল মানষ উপভোগে সম্ভব হচ্ছে না। অন্যদিকে যে ভাবে পারে লুটপাট করছে, প্রশাসন ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থার লোকজন নিরব দর্শক। প্রশাসনের নিরবতায় সর্বত্রই মনে হচ্ছে লুটপাটের রাজত্ব। বাজার নিয়ন্ত্রণে বানিজ্য মন্ত্রণালয়, বিভাগীয় ও জেলা প্রশাসনের নানা সভার সিদ্ধান্ত শুনা গেলেও তার কার্যকারিতা কতটুকু তা নিরপেক্ষ তদন্ত অনুসন্ধান প্রয়োজন বলে মত প্রকাশ করা হয়।

Related Posts