খেলা

আমিনুলের বোলিংয়ে ‘এক্স ফ্যাক্টর’!

বিএনএন ৭১ ডটকম
খেলা ডেস্ক: আলোচিত অভিষেক ম্যাচে পারফরম্যান্স দিয়ে যথেষ্টই আলোড়ন তুলেছেন আমিনুল ইসলাম বিপ্লব। তবে ম্যাচটি শুধু আনন্দ নয়, যন্ত্রণাও দিয়েছে বাংলাদেশের তরুণ এই ক্রিকেটারকে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুই উইকেট পাওয়ার ম্যাচে চোটও পেয়েছেন হাতে। ডানহাতি স্পিনারের বাঁ হাতে পড়েছে তিনটি সেলাই।

ম্যাচে বোলিং-ফিল্ডিংয়ের সময় আমিনুলের এই চোট বোঝা যায়নি বাইরে থেকে। কিন্তু বৃহস্পতিবার টিম হোটেলে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হওয়ার সময় দেখা গেল হাতে ব্যান্ডেজ। নিজেই জানালেন, নিজের বোলিংয়ে হ্যামিল্টন মাসাকাদজার একটি শট ফেরাতে গিয়ে চোট লেগেছিল হাতে। পরে মাসাকাদজাকে ফিরিয়েই আমিনুল নিয়েছেন দ্বিতীয় উইকেট। কিন্তু ক্ষতি হয়ে গেছে আগেই। ম্যাচের পরই ছুটতে হয়েছে হাসপাতালে।

দলের সঙ্গে চট্টগামে না থাকলেও বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী খোঁজখবর রাখছেন আমিনুলের। তিনি জানালেন চোটের অবস্থা। “ম্যাচের পরই ওর হাতে সেলাই দেওয়ার প্রয়োজন ছিল। আমরা এখান থেকে ফোনে ব্যবস্থা করেছি, চট্টগামের একটি হাসপাতালে নিয়ে রাত ১২টার দিকে সেলাই দেওয়া হয়েছে ওর হাতে।” “তিনটি সেলাই নিয়ে আমি অনেককেই খেলতে দেখেছি। ওর ইনজুরি স্পিনিং হাতেও নয়। তবে পরের ম্যাচ যেহেতু ২ দিন পরই, কিছু বলাও কঠিন। সবকিছু নির্ভর করছে আসলে ওখানে ফিজিও ও টিম ম্যানেজমেন্টের ওপর। তারাই ম্যাচের আগে অবস্থা দেখে বুঝতে পারবেন যে পরের ম্যাচে ওকে খেলানো যাবে কিনা।”

আমিনুল নিজে অবশ্য বেশ আশাবাদী আফগানিস্তানের বিপক্ষে শনিবার মাঠে নামা নিয়ে।
“গতকাল রাতের চেয়ে অবস্থা এখন বেশ ভালো। ব্যথা অনেকটাই কমেছে। খেলতে পারব কিনা, সেটা ফিজিওর সঙ্গে কথা বলে বোঝা যাবে। টিম ম্যানেজমেন্ট সিদ্ধান্ত নেবে। তবে এখন আমার কাছে হাত ভালোই মনে হচ্ছে।”

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অভিষেক ম্যাচে বুধবার ৪ ওভারে ১৮ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়েছেন আমিনুল। এই ম্যাচ জিতে ফাইনাল নিশ্চিত হয়েছে বাংলাদেশের, ফাইনালে উঠে গেছে আফগানিস্তানও। শনিবার বাংলাদেশ-আফগানিস্তান ম্যাচ তাই কেবলই নিয়ম রক্ষার।

Related Posts