সারা বাংলা

দেড় মাস ধরে মাদ্রাসা ছাত্র নিখোঁজ

বিএনএন ৭১ ডটকম
শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ): শ্রীনগরে প্রায় দেড় মাস ধরে এক মাদ্রাসা ছাত্র নিখোঁজ রয়েছে। এ বিষয়ে ছাত্রের পরিবার শ্রীনগর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছে (যার নং-৫১৮)। উপজেলার পাটাভোগ ইউনিয়নের হোগলাগাঁও হাজী রিয়াজুল ইসলাম দারুচ্ছুন্নাত দাখিল মাদ্রাসার প্রথম শ্রেণীর ছাত্র আব্দুল রহিম (১০) নামে ওই ছাত্র গত ২৮ ফেব্রুয়ারি সকাল থেকে নিখোঁজ হয়। নিখোঁজ হওয়ার দশ দিন পরে মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল ওই ছাত্রের পরিবারকে মোবাইল ফোনে জানান। খবর পাওয়ার পরে নিখোঁজ রহিমের বাবা-মা হোগলাগাঁও মাদ্রাসায় ছুটে আসেন এবং বিভিন্নস্থানে ছেলেকে খোঁজাখুজি শুরু করেন। ছেলের সন্ধান না পেয়ে গত ১৩ মার্চ শ্রীনগর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন তারা।

সরেজমিনে গিয়ে মাদ্রাসার একাধিক ছাত্রের সাথে আলাপ করে জানাযায়, রহিম নিখোঁজ হওয়ার আগের দিন রাতে সহকারী শিক্ষক মোঃ আব্দুল কুদ্দুস ছাত্রকে মারধর করেন। পরদিন সকাল থেকে তাকে আর মাদ্রাসায় দেখা পাননি। এ সময় মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল আবুল বাশারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এসএসসি পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে আমি কিছুটা ব্যস্ত ছিলাম। রহিম নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি জানতে পেরে আমি তার পরিবারকে তাৎক্ষনিক ফোন করে জানাই। মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির কর্মকর্তারা এ বিষয়ে অবগত আছেন কিনা তার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কমিটি নিয়ে দ্বিধাদ্বন্দ্বের কারণে বর্তমানে মাদ্রাসায় কোন দায়িত্বপ্রাপ্ত কমিটি ও কর্মকর্তা নেই।

সহকারী শিক্ষক মোঃ আব্দুল কুদ্দুছের কাছে মুঠো ফোনে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি ওই মাদ্রাসায় চাকরি করিনা। এর কারণ হিসেবে তিনি বলেন, বেতন কম হওয়ায় আমি চাকরি ছেড়ে দিয়েছি। ওই ছাত্রকে মারধর করার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি রহিমকে কোন মারধর করিনি।

ঢাকার কেরানীগঞ্জের বাসিন্দা রহিমের বাবা মোঃ ফরিদ শেখ বলেন, প্রায় দেড় মাস হয় মাদ্রাসা থেকে আমার ছেলে নিখোঁজ। মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে ছেলেকে খুঁজে পাওয়ার বিষয়ে তেমন কোন সহযোগিতা পাচ্ছিনা। পরে আমি নিজেই থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছি। ছেলেকে খোঁজে পেতে তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।
শ্রীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইউনুচ আলী জানান, নিখোঁজ ছাত্রকে খুঁজতে পুলিশ মাঠে কাজ করছে।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *