সারা বাংলা

বিরল রোগে আক্রান্ত একই পরিবারের পাঁচজন

চিকিৎসার জন্য প্রধান মন্ত্রীর সাহায্য কামনা

ফজলে রাব্বী সোহেল
সোনারগাঁ: সোনারগাঁয়ে একই পরিবারের পাঁচজন বিরল প্রকৃতির রোগে আক্রান্ত হয়ে পরেছে। অর্থাভাবে সুচিকিৎসা নিতে পারছে না অসহায় এ পরিবারটি। যতটুকু জমিজমা ছিল চিকিৎসা করাতে গিয়ে তার সব টুকুই বিক্রি করে নিঃস্ব হয়ে গেছে। সমাজের বিত্তবান সহ জনপ্রতিনিধিদের ধারে ধারে ঘুরেও কোন সাহায্য না পেয়ে অবশেষে সু-চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আবেদন জানিয়েছেন পরিবারের অসুস্থ্য লোকজন। এমন বিরল প্রকৃতির রোগাক্রান্ত ব্যক্তিদের বাড়ী সোনারগাঁ উপজেলার সনমান্দি ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের পাঁচানি গ্রামে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, পাঁচানি গ্রামের আ. রশিদ মিয়া (৬৫) তার তিন পুত্র জজ মিয়া (৪৫), জহিরুল ইসলাম (৪০), তাজুল ইসলাম (১৫) এবং তার নাতী নজরুল ইসলাম (১৪)। তাজুল ইসলাম নবম এবং নজরুল ইসলাম সপ্তম শ্রেণির ছাত্র। তারা পাচঁজনই বিরল প্রকৃতির রোগে আক্রান্ত। তাদের সবার দুই পা ফোলা। পা ফোলা এই ব্যক্তিদের দেখে গ্রামের কেউ বলছে গোদ রোগ, কেউ ফিস্টুলা আবার কেউ বলছে পাইরিয়া রোগ। ডাক্তাররাও সুনির্দিষ্টভাবে রোগ সনাক্ত করতে পারছেনা।

এ রোগ থেকে পরিত্রাণ পেতে অসহায় এই পরিবারটি চিকিৎসা করাতে গিয়ে জায়গা জমি বিক্রি করে নিয়ে নিঃশ্ব হয়ে পরছে। এলাকার জনপ্রতিনিধি এমনকি সংসদ সদস্যের কাছে গিয়েও কোন সাহায্য পায়নি।

এ সম্পর্কে জানতে চাইলে রোগাক্রান্ত আঃ রশিদ মিয়া বলেন, এই রোগটি আমাদের কারোই জন্মগত না। প্রথমে আমিই এ রোগে আক্রান্ত হই। পরে আমার বড় ছেলে জজ মিয়া, মেজো ছেলে জহিরুল ইসলাম ও ছোট ছেলে তাজুল ইসলাম আক্রান্ত হয়। এরপর আমার নাতি নজরুল ইসলামও এ রোগে আক্রান্ত হয়। তিনি বলেন, আমরা পাঁচ জনই চিকিৎসা করাতে গিয়ে জমিজমা যা ছিল সব বিক্রি করে দিয়েছি। তবুও এ রোগ সারছেনা। আমাদের পরিবারে উপর্জন করার কেউ নেই। এখন আমরা নিঃস্ব হয়ে গেছি।

রোগাক্রান্ত এ ব্যক্তিরা এদিকে পায়ের ব্যথায় দিন রাত কাতর হয়ে থাকে অপর দিকে ক্ষুধার যন্ত্রণায় দিন কাটে তাদের। মানবেতর জীবন-যাপন করা এ পরিবারটি তাদের চিকিৎসার সাহায্যের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহায্য কামনা করেছেন।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *