সারা বাংলা

বিএসএফের অনুপ্রবেশ নিয়ে কুড়িগ্রামের সীমান্তে উত্তেজনা

বিএনএন ৭১ ডটকম
কুড়িগ্রাম: কুড়িগ্রামের রাজিবপুর সীমান্তে বিএসএফের অনুপ্রবেশ কে কেন্দ্র করে উত্তেজনা বিরাজ করছে। গত শুক্রবার রাতে সীমান্ত গ্রামের মসজিদে মসজিদে মাইকিং করে জরুরি বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে বিজিবি।

জানা গেছে, গত শুক্রবার বেলা পৌনে ১টার দিকে রাজিবপুরের বালিয়ামারী সীমান্ত ১০৭২ এর ২০টি পিলারের নিকট থেকে কয়েক জন রাখাল ঘাস কাটতে গেলে বিএসএফের ১ জন যোয়ান তাদের ধাওয়া করতে করতে বাংলাদেশের ১০০ গজ অভ্যন্তরে ঢুকে পরে। ঘাস কাঁটা রাখাল পালিয়ে নদী পার হয়ে আত্মরক্ষা করে।

এদিকে বিএসএফ জোয়ান রাখালদের ধরতে না পেরে ফিরে যাওয়ার সময় পাশে ইরি/বোরো ক্ষেতে কাজ করা কৃষক আইয়ুব আলী (৫৫)কে সামনে পেয়ে মারপিট করতে থাকে। আইয়ুব আলীকে টেনে হিঁচড়ে ভারতের অভ্যন্তরে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। উপায়ন্ত না থেকে কৃষক আইয়ুব আলী বিএসএফের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে এবং বাংলাদেশের লোকদের এগিয়ে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করে। তার চিৎকারে লোক জন ছুটে গেলে বিএসএফ জোয়ান তার গায়ের ইউনিফোর্ম খুলে পালিয়ে রক্ষা পায়। পরে বিএসএফ তাদের সেন্টিপোস্ট থেকে ২ রাউন্ড ফাকা গুলি করেছে বলে প্রত্যক্ষ সীমান্ত বাসীরা জানিয়েছেন। পরে আহত আইয়ুব আলীকে রাজিবপুর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। সে বালিয়ামারী ব্যাপারী পাড়া মৃত্যু আজগর আলীর পুত্র।

এদিকে এলাকাবাসী বিএসএফের ইউনিফর্মটি বালিয়ামারী বিজিবি ক্যাম্পে জমা দেয়। ওই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিপ্তে বিজিবি বালিয়ামারী পক্ষ থেকে গত শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টায় দিকে বালিয়ামারী ব্যাপারি পাড়া, জালচিড়া পাড়া ও মিয়াপাড়া গ্রামের মসজিদের মাইক দিয়ে জরুরি ঘোষণা করে যে, শনিবার থেকে ওই সীমান্ত এলাকায় কোন ব্যক্তি গরু-বাছুর সীমান্তে না নিয়ে যাওয়ার জন্য। বিষয়টি অমান্য করলে তার বিরুদ্ধে আ্ইনানুগ ব্যবস্থা নিবে বিজিবি। তবে ওই ঘোষনায় সীমান্ত এলাকায় শত শত একর ইরি-বোরা চাষীদের মধ্যে হতাশা বিরাজ করছে।

চাষীরা জানান, তাদের ধান ক্ষেতে সেচ দিতে না পারলে তাদের আবাদ নষ্ট হয়ে যাবে। শনিবার সাড়ে ১০টার দিকে ওই বিষয় নিয়ে দু’দেশের মধ্যে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ধস্তাধস্তির সময় বিএসএফ সদস্যের ফেলে যাওয়া পোষাক বৈঠকের মাধ্যেমে ফেরত দেয়া হয়েছে। পতাকা বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব দেন বিজিবি জামালপুরস্থ ৩৫ ব্যাটালিয়নের পরিচালক লেফটেনেন্ট কর্নেল মহিউদ্দিন আহমেদ। অপর দিকে ভারতের পক্ষে নেতৃত্ব দেন ৫৭ বিএসএফ’র কমান্ডিং কর্মকর্তা বিশাল রানে।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *